জমির খতিয়ান (ই-পর্চা) ডাউনলোড করুন বিনামূল্যে। eporcha gov bd

বাংলাদেশ একটি জনবহুল দেশ ঘনবসতিপূর্ণ এই দেশটির আয়তন ১ লক্ষ ৪৭ হাজার ৫৭০ বর্গ কিলোমিটার বাংলাদেশের মধ্যে সবচেয়ে বড় সমস্যা হচ্ছে মানুষের জমি জমার সমস্যা বর্তমান সময়ের আদালতের সবচেয়ে বেশি যে মামলাগুলো হয় তা হচ্ছে দেওয়ানী মামলা এবং বেশির ভাগেই ফৌজদারি মামলা হয়ে থাকে জমি জমার বিষয় নিয়ে। তবে জমির কাগজপত্র সংশধন সহ সকল কাজ্জক্রম দেওয়ানী আদালতে হয়ে থাকে। মনে রাখবেন দেওয়ানি মামলা কখোনো জেলে যেতে হয় না।

যে কোন খতিয়ান দেখতে ভিজিট করুন

আরো দেখুনঃ  জমির খতিয়ান অনলাইনে অনুসন্ধান করে আবেদন করতে Click Here 

আপনারা যাহারা জানেন না জমির পর্চা কিভাবে ডাউনলোড করতে হবে। আপনাদের জন্য সহজ নিয়ম এখানে দেওয়া হয়েছে নীচের দেওয়া পব্ধতি অনুসরন করে সহজেই আপনি অনলাইন থেকে eporcha.gov.bd ওয়েবসাইটে প্রবেশ করে ডাউনলোড করতে পারবেন পর্চা বা খতিনায় তা জন্য ভিজিট করুণ এখানে

জমির খতিয়ান বা পর্চা অনুসন্ধান ২০২৩

এই পোষ্টের মাধ্যমে আপনাদেরকে সহজেই কিভাবে অনলাইন থেকে কিভাবে খতিয়ান ডাউনলোড করা যায় । তা নিয়ে মূলত আলোচনা করব। আপনি যদি এক খন্ড জমির মালিক হয়ে থাকেন বা আপনার পূর্বপুরুষদের জমি সম্পর্কে আপনি জানেন না তাহলে আপনি অনলাইন থেকে আপনার পূর্বপুরুষদের নাম দিয়ে সহজে আপনার জমির পরিমাণ জেনে নিতে পারবেন ।

জমির মালিকানা যাচাই অনলাইন ২০২৩

এছাড়াও আপনারা সরাসরি অনলাইন এর মাধ্যমে আবেদন মাধ্যমে জমির সার্টিফাইড কপি পেয়ে যাবেন। অনলাইন কপি ডাউনলোড করতে পারবেন এবং সার্টিফাইড কপি জন্য অনলাইন থেকে আবেদন করতে পারবেন । যা আপনি ঘরে বসেই পেয়ে যাবেন সার্টিফাইড কপি। তবে অনলাইন থেকে ডাউনলোড করার ক্ষেত্রে আপনাকে কোন ধরনের ফি দিতে হবে না । [জন্ম সনদ] অনলাইন নিবন্ধন, সংশোধন, ভেরিফাই ও ডাউনলোডের নতুন নিয়ম ২০২৩ ক্লিক করুণ এখানে

ই-পর্চা www.eporcha.gov.bd

ই-নামজারি আবেদন যাচাই করুন অনলাইনে-ভূমি মন্ত্রণালয় land gov bd ক্লিক করুণ এখানে

জমির খতিয়ান দেখতে অনলাইন রেজিষ্টেশন

অনেকেই ভূমি অফিসে গিয়ে হয়রানির শিকার হয়ে থাকেন। আপনি যদি একটি স্মার্ট মোবাইল ফোন ব্যবহার করে থাকেন । তাহলে ঘরে বসেই নিজে নিজে আপনি অনলাইন থেকে নিজের খতিয়ান বের করে দেখতে পারবেন । তার জন্য আমাদের এখানে বিস্তারিত আলোচনা করা হয়েছে। এই খান থেকে আপনি পদ্ধতি গুলো দেখে সহজেই আপনার নিজের বা পূর্বপুরুষদের খতিয়ান আরএস-cse ও বিএস ডাউনলোড করতে পারবেন । তবে এই ডাউনলোডের ক্ষেত্রে আপনার কোন ধরনের ফি প্রদান করতে হবে না । সম্পূর্ণ বিনামূল্যে আপনি দেখতে পারবেন আপনাদের পূর্বের জমির পরিমাণ । কত নম্বর দাগে আছে এই জমি এবং কোন মৌজায় খতিয়ান নাম্বার কত আপনারা এখান থেকে সহজেই ডাউনলোড করে দেখতে পারবেন।

আরো দেখুনঃ 

জমির মালিকানা অনলাইনে সঠিকভাবে যাচাই করুন ২০২৩ ভূমি মন্ত্রণালয়

জমির খতিয়ান (ই-পর্চা) ডাউনলোড করুন বিনামূল্যে। eporcha gov bd

জমি বাটোয়ারা বা বন্টননামা দলিল কম খরছে কীভাবে করবেন জেনে নিন।

[জন্ম সনদ] অনলাইন নিবন্ধন, সংশোধন, ভেরিফাই ও ডাউনলোডের নতুন নিয়ম ২০২৩ঃ bdris.gov.bd

ভূমি নতুন ডিজিটাল সার্ভে (BDS) ২০২৩ জরিপকালে জমির মালিকের যা যা লাগবে

ই-নামজারি আবেদন যাচাই করুন অনলাইনে-ভূমি মন্ত্রণালয় land gov bd

ভূমি উন্নয়ন কর: নাগরিক নিবন্ধন [অনলাইনে] জমির খাজনা দেওয়ার নতুন নিয়ম ২০২৪

আপনি যাই করেন না কেনো আপনাকে প্রথমেই অনলাইন  রেজিষ্টেশন জন্য ওয়েবসাইট https://ldtax.gov.bd/ প্রবেশ করে নাগরিক কর্নার ক্লিক করে রেজিষ্টেশন করতে হবে, মোবাইল নাম্বার ও NID লাম্বার লাগবে রেজিষ্টেশন সময়। আরো যে সব তত্ত্ব চায় সুন্দর ভাবে পূরন করে। আপনি আপনার রেজিষ্টেশন সম্পূর্ণ করুণ।

ই-পর্চা দেখুন অনলাইনে রেজিষ্টেশন

জমির খতিয়ান অনলাইন মাধ্যমে যেভাবে দেখবেন

দাগ নাম্বার বা খতিয়ান নাম্বার দিয়ে আপনি কোন খরচ ছড়া যেভাবে দেখতে পারবেন বা ডাউনলোড করতে পারবেন খতিয়ান এর অনলাইন কপি। সেই সব পদ্ধতি গুলো নিয়েই মূলত এখানে আলোচনা করা হয়েছে । আপনি খতিয়ান অনলাইন থেকে দেখতে চাইলে প্রথমে আপনাকে অনলাইনের ওয়েবসাইটে প্রবেশ করতে হবে eposra.gov.bd ওয়েবসাইট থেকে আপনি প্রথমেই ওপেন করতে হবে . এরপর আপনাকে এখানে ন্যাশনাল আইডি কার্ড মোবাইল নাম্বার দিয়ে আপনি একটি অ্যাকাউন্ট খুলবেন অ্যাকাউন্টটি অবশ্যই মোবাইল ভেরিফিকেশন হবে এবং একটি পাসওয়ার্ড আপনাকে এখানে দিতে হবে । মোবাইল নাম্বার দিয়ে একাউন্ট খোলার পর আপনি যেভাবে অনলাইন থেকে খতিয়ান ডাউনলোড করতে পারবেন তা এখানে ইমেজ এর মাধ্যমেও দেখানো হয়েছে। নিচের দেওয়া নাগরিক লগইন অপসানে ক্লিক করে লগইন করুণ।

নাগরিক লগইন

খতিয়ান অনুসন্ধান করুণ অনলাইন থেকে

আপনি এইবার খতিয়ান অনুসন্ধান অপসানে ক্লিক করুণ।  এবং পরবত্তি নিয়োম গুলো মনোযোগ দিয়ে দেখুন।

খতিয়ান অনুসন্ধান

এখানে লিখা খতিয়ান অনলাইন আবেদন; আপনার জমি যেখানে তার জন্য বিভাগ, জেলা নির্বাচন করুণ।

খতিয়ান টাইপ নির্বাচন করুণ, এখন সাধারনত সিএস ও আরএস এর খতিয়ান গুলো অনলাইন পাওয়া যায়। বিএস এর খতিয়ান এখনো অনলাইনে পাওয়া যায় না। তবে অতি শ্রিগ্রই অনলাইন এর মাধ্যমে আপনি পেয়ে যাবেন।

এবার উপজেলা ও খতিয়ান নাম্বার দিয়ে আপনি সহজেই অনলাইন থেকে দেখতে পাবেনেই খতিজান কত জমি আছে। আপনার কোন জমি অন্য কারো নামে নামজারি হয়েছে কি না তাও আপনারা এখান থেকে দেখতে পারনেন।

আরো দেখুনঃ বাংলাদেশ  ডিজিটাল সার্ভে (BDS) ২০২৩ জরিপকালে জমির মালিকের যা যা লাগবে জানতে ক্লিক করুণ এখানে

আপনি যদি খতিয়ানের সার্টিফিকেট কপি পেতে চান তা হলে সহজেই আপনি  অনলাইন এর মাধ্যমে আবেদন করতে পারবেন। মোটামুটি আপনি ১সপ্তার মধ্যে আপনার হাতে চলে আসবে এই খতিয়ান মাত্র ৯০ টাকা। আপনি চাইলে আবেদন ট্রেক করতে পারবেন। তার জন্য ভিজিট করুণ এখানে।

খাতিয়ান আবেদন ট্রেকিং করুণ

 

যদি সরাসরি ই-পর্চা বা খতিয়ান ডাউনলোড করতে চান তাহলে এখানে ভিজিট করুন। সম্পূর্ণ বিনামূল্যে ডাউনলোড করতে পারবেন খতিয়ান । এছাড়াও আপনি কোন ধরনের ফি ছাড়াই অনলাইন থেকে সহজেই দেখতে পারবেন খতিয়ান। শুধুমাত্র সার্টিফাইড খতিয়ান ডাউনলোডের ক্ষেত্রে আপনার কাছ থেকে ৫০ টাকা ফি নেওয়া হবে যদি আপনি পোস্ট অফিসের মাধ্যমে হাতে পেতে চান তাহলে আপনার কাছ থেকে আরও ৪০ টাকা এক্সট্রা নিবে সরবো মোট ৯০ টাকা ফি নিবে এবং আপনি অনলাইন থেকে যেভাবে আবেদন করবেন জেনে নিন।