DPE [নতুন নির্দেশাবলী] ২০২৪ প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক নিয়োগ পরীক্ষা।

প্রাথমিক বিদ্যালয় সহকারী শিক্ষক নিয়োগ প্রক্রিয়া ২০২৪ বর্তমানে চলছে। এই বছর লিখিত আকারে পরিচালিত হচ্ছে এই নিয়োগ পরীক্ষা, যেহেতু সকল প্রার্থীকে লিখিত পরীক্ষায় উপস্থিত হতে হবে এবং লিখিত পরীক্ষা পাস করলেই মৌখিক পরীক্ষা দিতে হবে, তাই আপনাকে লিখিত পরীক্ষা কেন্দ্রে যাওয়ার জন্য কিছু নির্দেশাবলী অনুসরণ করতে হবে। প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তর থেকে এই নির্দেশনা না মেনে পরীক্ষা কেন্দ্রে প্রবেশ করলে হয়রানির শিকার হতে পারেন এমনকি পরীক্ষায় বাতিল হয়ে যেতে পারে।

[৩য় ধাপ] শিক্ষক নিয়োগ পরীক্ষার প্রবেশপত্র ভিজিট করুণ dpe.teletank.com.bd

মার্চ ২০২৪ তারিখ ৩য় ধাপের পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হচ্ছে। ৩য় ধাপে ২২টি জেলায় এই নিয়োগ পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে। মোট পরীক্ষার্থীর সংখ্যা ৪ লাখ ৩৯ হাজার ৪৪৩ জন, কেন্দ্রের সংখ্যা ৬০৩টি, কক্ষের সংখ্যা ৯ হাজার ৩৫৭টি। যেহেতু জেলা ভিত্তিক এই পরীক্ষা তাই আপনি নিদিষ্ট নিয়ম মেনে পরীক্ষায় অংশ গ্রহন করুণ।

প্রাথমিক শিক্ষক নিয়োগ পরীক্ষা নির্দেশাবলী

প্রাথমিক শিক্ষক নিয়োগ পরীক্ষায় মানতে হবে ২১টি নির্দেশনা: পিডিএফ

  • লিখিত ও মৌখিক পরীক্ষায় অংশগ্রহণের জন্য প্রবেশপত্র এবং জাতীয় পরিচয় পত্র অবশ্যই সঙ্গে আনতে হবে
  • পরিক্ষার দিন সকাল ৯:০০ টায় প্রার্থীকে নির্ধারিত আসন গ্রহণ করতে হবে এবং পরীক্ষা সমাপ্ত না হওয়া পর্যন্ত কক্ষ ত্যাগ করতে পারবেন না।
  • সকাল ৯:৩০ টায় পরীক্ষা কেন্দ্রের সকল প্রবেশপথ বন্ধ করে দেয়া হবে এবং পরীক্ষার হলে ওএমআর শীট বিতরণ করা হবে।
  • পরীক্ষা শুরুর পর থেকে ওএমআর ফরম জমা না দেয়া পর্যন্ত কাউকে বাইরে যেতে দেয়া হবে না, তাই পরীক্ষার শুরু হওয়ার আগেই সকল প্রয়োজন মিটিয়ে আসতে হবে।
  • কক্ষ পরিদর্শকের অনুমতি ব্যতীত নিজ আসন ছাড়া অন্য কোন আসনে বসা যাবে না।
  • প্রবেশপত্র ব্যতিরেকে কোন পরীক্ষার্থীকে পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করতে দেয়া হবে না।
  • পরীক্ষা কেন্দ্রে কোন বই, উত্তরপত্র, নোট বা অন্য কোন কাগজপত্র, ক্যালকুলেটর, মোবাইল ফোন, ভ্যানিটিব্যাগ, পার্স, হাতঘড়ি বা ঘড়ি জাতীয় বস্তু, ইলেকট্রনিক্স হাত ঘড়ি বা যে কোন ধরনের ইলেকট্রনিক্স ডিভাইস, যোগাযোগ যন্ত্র বা এই জাতীয় বস্তু সঙ্গে নিয়ে প্রবেশ করতে দেয়া হবে না।
  • পরীক্ষার্থীকে পরীক্ষা কক্ষে অবস্থানকালে অবশ্যই উভয় কান উন্মুক্ত রাখতে হবে।
  • আবেদনপত্রে পরীক্ষার্থীর প্রদত্ত ছবি হাজিরা শীটে থাকবে এবং ইনভিজিলেটর এই ছবি দিয়ে পরীক্ষার্থীকে যাচাই করবেন । ভুয়া পরীক্ষার্থীর বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।
  • আবেদনপত্রে প্রার্থীর দেয়া স্বাক্ষরের সাথে পরীক্ষার হাজিরা সীটে এবং ওএমআর শীটে প্রদত্ত স্বাক্ষরসহ সকল তথ্যে মিল থাকতে হবে
  • পরীক্ষার্থীকে উত্তরপত্রে অবশ্যই কালো বল পয়েন্ট কলম ব্যবহার করতে হবে।
  • একজন পরীক্ষার্থীর জন্য ১টি ওএমআর ফরমের সেট কোড পূর্বনির্ধারিত থাকবে, পরীক্ষার্থীর জন্য নির্ধারিত ওএমআর ফরমের সেট কোডটি প্রবেশপত্রে উল্লেখ করা আছে।
  • পরীক্ষার হলে যে ওএমআর ফরমটি দেওয়া হবে, সেখানে সেট কোডের ঘরে প্রবেশপত্রে উল্লিখিত কোড অনুযায়ী বৃত্ত ভরাট করতে হবে।
  • ওএমআর ফরম পাওয়ার পর ফরমের ডানদিকে নীচে লেখা নির্দেশাবলী সমূহ খুব ভালোভাবে পড়ে নিতে হবে।
  • পরীক্ষায় প্রশ্নপত্রের সেট কোড সমূহ এবং ওএমআর ফরমের সেট কোড ভিন্ন হবে। পরীক্ষার্থীর ওএমআর সেট কোড এর বিপরীতে কোন সেট কোডের প্রশ্ন পাবেন তা পরীক্ষা শুরু হওয়ার পাঁচ মিনিট আগে কক্ষ পরিদর্শক জানিয়ে দিবেন। পরীক্ষার্থী সঠিক কোডের প্রশ্নটি পেলেন কিনা তা নিজে নিশ্চিত হবেন।
  • প্রবেশপত্রে নির্ধারিত ওএমআর-এর সেট কোড ব্যতীর্ক হতে অন্য সেট কোডে পরীক্ষার খাতায় লিখলে উত্তরপত্রটি বাতিল বলে গণ্য হবে
  • হাজিরা সীটের সঠিক স্থানে পরীক্ষার্থীকে স্বাক্ষর করতে হবে: পরীক্ষার্থীদের অবশ্যই হাজিরা সীটে নিদিষ্ট স্থান সাক্ষর করতে হবে
  • ওএমআর ফরমের উপরিভাগে সকল টেক্সট বক্স পূরণ করতে হবে: অবশ্যই ওএমআর ফরমের সকল টেক্সট বক্স নির্ধারিত নির্দেশনা অনুযায়ী পূরণ করতে হবে।
  • কক্ষ পরিদর্শকের নির্দেশে ওএমআর ফরম এবং প্রশ্ন পত্র জমা দেওয়ার পর কক্ষ পরিদর্শক পরীক্ষার্থীদের কেউ ত্যাগ করতে বলবে না।
  • রীক্ষা কেন্দ্রে আসন নির্ধারণের জন্য আসন তালিকা টানা হবে। এক পরীক্ষার্থীর জায়গায় অন্য কোন পরীক্ষার্থী বসলে তার পরীক্ষা বাতিল হবে।
  • পরীক্ষা হলে কক্ষ পরিদর্শকের সঙ্গে নির্ধারিত নির্দেশ মেনে চলতে হবে
  • পরীক্ষা চলাকালীন কোনো সময়েই অন্য পরীক্ষার্থী বা কাউকে যোগাযোগ করা হবে না।