গুচ্ছ ইঞ্জিনিয়ারিং বিশ্ববিদ্যালয় [রুয়েট,চুয়েট ও কুয়েট] ভর্তি বিজ্ঞপ্তি ২০২৪

৩টি ইঞ্জিনিয়ারিং বিশ্ববিদ্যালয় ভর্তি সার্কুলার 2024: রুয়েট, চুয়েট, কুয়েট 2023-2024 শিক্ষাবর্ষের জন্য ইঞ্জিনিয়ারিং প্রোগ্রামের ভর্তির বিজ্ঞপ্তি প্রকাশিত হয়েছে। এই নিবন্ধে, আমরা আপনাকে শিক্ষাগত যোগ্যতার, আবেদনের পদ্ধতি এবং গুরুত্বপূর্ণ তারিখগুলি সহ ইঞ্জিনিয়ারিং বিশ্ববিদ্যালয় ভর্তি প্রক্রিয়া সম্পর্কিত সমস্ত প্রয়োজনীয় তথ্য সরবরাহ করব।

CKRUET Admission Apply

কম্বাইন্ড ইঞ্জিনিয়ারিং ভর্তি বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ

রুয়েট, চুয়েট এবং কুয়েটের অফিসিয়াল ওয়েবসাইটগুলি ইঞ্জিনিয়ারিং ভর্তি বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করেছে। এই সার্কুলারগুলিতে ভর্তি প্রক্রিয়া সম্পর্কে বিস্তারিত তথ্য রয়েছে, যার মধ্যে যোগ্যতার মানদণ্ড, গুরুত্বপূর্ণ তারিখ, আসন বরাদ্দ এবং আবেদনের পদ্ধতি রয়েছে। আরও তথ্য সংগ্রহ করতে, আগ্রহী প্রার্থীরা সংশ্লিষ্ট বিশ্ববিদ্যালয়ের অফিসিয়াল ওয়েবসাইটগুলি দেখতে পারেন।

admissionckruet.ac.bd

রুয়েট, চুয়েট এবং কুয়েটের জন্য 2023-2024 শিক্ষাবর্ষের ইঞ্জিনিয়ারিং ভর্তি বিজ্ঞপ্তি প্রকাশিত হয়েছে।৩টি ইঞ্জিনিয়ারিং বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষার্থীদের জন্য যোগ্যতার মানদণ্ড পূরণ করা এবং আবেদনের পদ্ধতিগুলি সঠিকভাবে অনুসরণ করা অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। কোনো অতিরিক্ত তথ্য বা ভর্তি প্রক্রিয়ার পরিবর্তনের জন্য অফিসিয়াল ওয়েবসাইটের সাথে আপডেট থাকুন। এই মর্যাদাপূর্ণ বিশ্ববিদ্যালয়গুলিতে ইঞ্জিনিয়ারিং ভর্তির জন্য আবেদনকারী সকল প্রার্থীদের জন্য শুভকামনা!

কম্বাইন্ড ইঞ্জিনিয়ারিং ভর্তি সময়সূচী ২০২৪

 Title Date & Time
আবেদনের সময় শুরু১০ মে ২০২৪
আবেদনের সময় শুরু২২ মে ২০২৪
আবেদন ফি জমা দেওয়া শেষ সময়২৩ মে ২০২৪
নিরবাচিত প্রাথীদের তালিকা০৩ জুন ২০২৪
প্রবেশ পত্র ডাউনলোড০৪ জুন ২০২৪
ভর্তি পরীক্ষার তারিখ১৭ জুন ২০২৪
ভর্তি পরীক্ষার ফলাফল০৮ জুলাই ২০২৪

ইঞ্জিনিয়ারিং ভর্তির জন্য শিক্ষাগত যোগ্যতার

৩টি ইঞ্জিনিয়ারিং বিশ্ববিদ্যালয় ভর্তি পরীক্ষার জন্য যোগ্য হতে, প্রার্থীদের কিছু প্রয়োজনীয়তা তথ্য পূরণ করতে হবে। এখানে ইঞ্জিনিয়ারিং ভর্তির জন্য মূল যোগ্যতার মানদণ্ড রয়েছে:

গুচ্ছ ইঞ্জিনিয়ারিং বিশ্ববিদ্যালয় ভর্তি ২০২৪

  • নাগরিকত্ব: প্রার্থীদের অবশ্যই বাংলাদেশের নাগরিক হতে হবে।
  • শিক্ষাগত যোগ্যতা: প্রার্থীদের 2023 সালে এইচএসসি বা সমমানের পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হতে হবে।
  • ন্যূনতম জিপিএ: প্রার্থীদের এসএসসি বা সমমানের পরীক্ষায় ন্যূনতম জিপিএ 4.00 এবং এইচএসসি বা সমমানের পরীক্ষায় ন্যূনতম জিপিএ 5.00 থাকতে হবে।
  • বিষয়-ভিত্তিক জিপিএ: সমস্ত বোর্ডের জন্য, প্রার্থীদের এইচএসসি বা সমমানের পরীক্ষায় গণিত, পদার্থবিদ্যা, রসায়ন এবং ইংরেজিতে 5.00 জিপিএ থাকতে হবে।
  • নির্দিষ্ট প্রয়োজনীয়তা: বায়োমেডিকেল ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের জন্য আবেদনকারী প্রার্থীদের এইচএসসি বা সমমানের পরীক্ষায় ন্যূনতম জিপিএ 4.00 থাকতে হবে।

এটি লক্ষ করা গুরুত্বপূর্ণ যে এই যোগ্যতার মানদণ্ডগুলি পূরণ করতে ব্যর্থ হলে ইঞ্জিনিয়ারিং ভর্তি পরীক্ষার আবেদন বাতিল করা হবে।

প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ে আসন সংখ্যা

তিনটি প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়, রুয়েট, চুয়েট এবং কুয়েট, 2024 শিক্ষাবর্ষের জন্য আলাদা আসন বরাদ্দ রয়েছে। এখানে বিশদ বিবরণ রয়েছে:

  • রুয়েট: রুয়েটে মোট আসন সংখ্যা 1235টি।
  • চুয়েট: চুয়েট ইঞ্জিনিয়ারিং প্রোগ্রামের জন্য মোট 901টি আসন অফার করে।
  • কুয়েট: কুয়েটে ইঞ্জিনিয়ারিং পরীক্ষার্থীদের জন্য মোট 1065টি আসন রয়েছে।

ইঞ্জিনিয়ারিং ভর্তি পরীক্ষার জন্য আবেদন করার আগে প্রার্থীদের প্রতিটি বিশ্ববিদ্যালয়ে আসন বরাদ্দ সম্পর্কে সচেতন হওয়া অপরিহার্য।

ইঞ্জিনিয়ারিং ভর্তির জন্য আবেদনের পদ্ধতি

ইঞ্জিনিয়ারিং ভর্তির আবেদন প্রক্রিয়া ১০ মে, ২০২৪ থেকে শুরু হবে। আগ্রহী প্রার্থীরা সংশ্লিষ্ট বিশ্ববিদ্যালয়ের অফিসিয়াল ওয়েবসাইটের মাধ্যমে আবেদন করতে পারবেন। এখানে আবেদন পদ্ধতির জন্য একটি ধাপে ধাপে নির্দেশিকা রয়েছে:

  • *কাঙ্ক্ষিত বিশ্ববিদ্যালয়ের অফিসিয়াল ওয়েবসাইট দেখুন।
  • একটি বৈধ ইমেল ঠিকানা এবং যোগাযোগ নম্বর ব্যবহার করে একটি অ্যাকাউন্ট নিবন্ধন করুন৷
  • সঠিক ব্যক্তিগত এবং একাডেমিক তথ্য দিয়ে আবেদনপত্র পূরণ করুন।
  • আবেদন নির্দেশিকাতে উল্লেখিত স্পেসিফিকেশন অনুযায়ী ফটোগ্রাফ এবং স্বাক্ষর সহ প্রয়োজনীয় নথি আপলোড করুন।
  • নির্ধারিত পেমেন্ট গেটওয়ের মাধ্যমে অনলাইনে আবেদন ফি পরিশোধ করুন।
  • যাচাই করে আবেদন জমা দিন।

প্রার্থীদের অবশ্যই নিশ্চিত করতে হবে যে তারা ইঞ্জিনিয়ারিং ভর্তি বিজ্ঞপ্তিতে উল্লেখিত সময়সীমার আগে তাদের আবেদন জমা দিয়েছে।

ইঞ্জিনিয়ারিং ভর্তি পরীক্ষার বিস্তারিত

ইঞ্জিনিয়ারিং ভর্তি পরীক্ষা ১৭ জুন, ২০২৪-এ অনুষ্ঠিত হবে। পরীক্ষায় চারটি বিষয় থাকবে: গণিত, পদার্থবিদ্যা, রসায়ন এবং ইংরেজি। প্রতিটি বিষয়ে ২৫টি প্রশ্ন থাকবে, মোট ১০০টি প্রশ্ন থাকবে।

প্রতিটি বিষয়ের জন্য নম্বর বন্টন নিম্নরূপ:

  • গণিত: 25টি প্রশ্ন, 150 নম্বর
  • পদার্থবিজ্ঞান: 25টি প্রশ্ন, 150 নম্বর
  • রসায়ন: 25টি প্রশ্ন, 150 নম্বর
  • ইংরেজি: 25টি প্রশ্ন, 50 নম্বর

পরীক্ষার জন্য মোট নম্বর হবে ৫০০ ৷ পরীক্ষাটি হবে বহু-পছন্দ ভিত্তিক, এবং প্রার্থীদের প্রদত্ত বিকল্পগুলি থেকে সঠিক উত্তর চয়ন করতে হবে৷